চলছে পরিবহন ধর্মঘট : চরম ভোগান্তিতে চট্টগ্রামবাসী

প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর ২০১৬, ১৫:৩৮ | আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০১৬, ১৬:০৯

অনলাইন ডেস্ক
ADVERTISEMENT

চলছে পরিবহন ধর্মঘট। চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন চট্টগ্রাম ও আশপাশের জেলার মানুষ । সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে পড়েছেন শিক্ষার্থী ও কর্মজীবী নারী-পুরুষ। বেশি ভাড়া দিয়ে রিকশা, ভ‌্যান, পিকআপ, অটোরিকশায় গাদাগাদি করে গন্তব‌্যে ছুটছেন মানুষ।

মঙ্গলবার ভোর ছয়টা থেকেই গণপরিবগন নেই চট্টগ্রাম মহানগরী, রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবান ও কক্সবাজার জেলার সড়ক-মহাসড়কে।

বাস-ট্রাক-প্রাইম মুভার ও ট্রেইলারের জন্য টার্মিনাল নির্মাণ, পুলিশি হয়রানি বন্ধ, অটো রিকশার পার্কিং স্পট, সিএনজি অটোরিকশার নিবন্ধন ও মালিকের জমা ছয়শ টাকা নির্ধারণসহ নয় দফা দাবিতে একদিনের এ ধর্মঘট ডেকেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন।

মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত ধর্মঘট চলবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি মো. মুছা।

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সোমবারের সংবাদ সম্মেলনে শ্রমিকনেতা মুছা জানিয়েছিলেন, ভুয়া সংগঠনের নামে পরিবহন শ্রমিক সংগঠন দখলদারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা, বিআরটিএ ও যুগ্ম শ্রম পরিচালকের দপ্তরের দুর্নীতি-হয়রানি ও অব্যবস্থাপনা বন্ধ, পরিবহন শ্রমিকদের নিয়োগপত্র দেওয়া ও কল্যাণ তহবিলের টাকা পাওয়া নিশ্চিত করাও তাদের দাবির মধ‌্যে রয়েছে।

সকাল থেকে নগরীর অক্সিজেন বাস স্ট্যান্ড, বহদ্দারহাট বাস স্টেশন থেকেও কোনো গাড়ি তিন পার্বত্য জেলা ও কক্সবাজারের দিকে যাচ্ছে না।
জামালখান এলাকায় গাড়ির জন্য অপেক্ষমান এক ডাক্তার জানান, চেম্বারে যাওয়ার জন্য বের হয়ে গাড়ি না পেয়ে ঘরে ফিরে যাচ্ছেন তিনি। 

নগরীর সব মোড়েই গাড়ির অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে মানুষকে। খালি রিকশা, অটোরিকশা, রিকশাভ‌্যান দেখলেই দলবেঁধে ছুটে যাচ্ছেন।
পুরুষ যাত্রীরা ধস্তাধস্তি করে এসব যানবাহনে জায়গা করে নিতে পারলেও নারী ও শিশুরা উঠতেই পারছেন না।

নগরীতে অল্পকিছু টেম্পো, হিউম‌্যান হলার চলছে, তবে এসব যানবাহনের পাদানিতেও একসঙ্গে চার-পাঁচজন করে বাদুরঝোলা হয়ে যাচ্ছেন। যারা রিকশা-গাড়িতে উঠতে পারছেন না, তারা বাধ‌্য হয়ে হেঁটেই গন্তব‌্যে রওনা হন।