শিক্ষিকার ঝুলন্ত লাশ, পুলিশ স্বামী পলাতক

প্রকাশ : ২৬ নভেম্বর ২০১৬, ১৬:১০

অনলাইন ডেস্ক
ADVERTISEMENT

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা পৌর এলাকায় নিজ ঘরের ধরনা থেকে এক শিক্ষিকার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই শিক্ষিকার নাম  আলেমাতুন শাহী রিনতি (৩৮)। 
  
তিনি বোয়ালিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষিকা ছিলেন এবং পৌর এলাকার বোয়ালিয়া এলাকার প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. শাহ আলমের মেয়ে। 
  
শনিবার সকালে গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ খবর পেয়ে ওই শিক্ষিকার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। 
এদিকে ঘটনার পর থেকে রিনতির স্বামী পুলিশের সাবেক উপপরিদর্শক (এসআই) মো. শাহজাহান  আলী (৪৬) পলাতক রয়েছেন। 
  
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বোয়ালিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুল গফুর। 
  
তিনি বলেন, সকালে ওই শিক্ষিকার মা তার ঘরে গিয়ে মেয়ের ঝুলন্ত লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়। 
  
পুলিশের এই এসআই বলেন, ওই শিক্ষিকার শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি আত্মহত্যা। 
  
তবে তিনি জানান, রিনতির পরিবার তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করে মামলা করেছে। স্বামী শাহজানের সঙ্গে তার বনিবনা হচ্ছিল না বলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। এই কারণে মেয়েকে তার স্বামী হত্যা করেছে অভিযোগ করে তার পরিবার। 
  
রিনতির মা নূরজাহান বেগম এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। 
  
প্রতিবেশীরা জানান, স্বামী শাহজাহান কিছুদিন আগে তার দুই সন্তানকে তাদের গ্রামের বাড়ি গোবিন্দগঞ্জের চানপাড়ায় নিয়ে যান। গত কয়েকদিন তাকে স্ত্রীর কাছে আসতে দেখা গেছে। 
  
রিনতির মা জানান, শুক্রবার রাতে শাহজাহান মেয়ের বোয়ালিয়ার বাসায় যান। এই হত্যার পেছনে তার সম্পৃক্ততা রয়েছে। 
  
এদিকে এই শিক্ষিকাকে হত্যার অভিযোগে বোয়ালিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও স্থানীয় বাসিন্দারা বোয়ালিয়া মোড়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। তারা শিক্ষিকা আলেমাতুন হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার ও শাস্তি দাবি করেন।