রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর জন্য আলাদা বিমান : মেনন

প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর ২০১৬, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক
ADVERTISEMENT

হাঙ্গেরি সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমানের ফ্লাইটে যান্ত্রিক ত্রুটির প্রেক্ষাপটে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর জন্য আলাদা বিমান কেনার কথা জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে একথা জানান তিনি।

রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ভিভিআইপি ভ্রমণের জন্য এক্সিকিউটিভ এয়ারক্রাফট কেনা হবে। অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে এ বিষয়ে আলাপ হয়েছে। খুব শিগগিরই কেনা হবে।’ একদিন আগেই হাঙ্গেরি সফরের সময় বিমানে যান্ত্রিক ত্রুটির জন্য তুর্কমেনিস্তানে জরুরি অবতরণ করতে হয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে। এই ঘটনার পর যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, চীন, সৌদি আরব, কাতারসহ বিভিন্ন দেশের সরকার ও রাষ্ট্র প্রধানের মতো বাংলাদেশেও বিশেষ বিমানের ব্যবস্থা করার আলোচনা উঠে আসে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

এদিকে, প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানের ত্রুটির কারণে সংসদীয় কমিটির বৈঠকে ক্ষোভের মুখে পড়তে হয় বিমানমন্ত্রী রাশেদ খান মেননকে। বৈঠকে অংশ নেওয়া এক সংসদ সদস্য বলেন, কমিটিতে সদস্যরা অভিযোগ করেছেন, মন্ত্রণালয়ের সঠিকভাবে পর্যবেক্ষণ করলে একের পর এক ঘটনা ঘটত না। বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি ফারুক খান সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা গভীরভাবে অসন্তোষ প্রকাশ করেছি। কারণ আমরা দেখেছি যে, কিছুদিন পূর্বে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে প্রধানমন্ত্রী দেশে ফেরত আসার সময়ে রানওয়েতে ঘটনা ঘটেছিলো।’

‘আমরা জানতে চেয়েছিলাম সেই ঘটনার যারা দোষী তাদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে? তারা জানিয়েছে, ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আমরা মনে করি যে ধরনের ইরেসপনসিবল বিহেভিয়ার করা হয়েছে, তাতে আরও পানিশমেন্ট দেওয়া উচিৎ ছিল।’

বৈঠক শেষে নিজের ওপর কমিটির অসন্তোষ প্রকাশের কথা স্বীকারও করেছেন মন্ত্রী মেনন।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘কমিটির সদস্যরা অত্যন্ত ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। আমাকেও রেসপনসিবল করে কথা বলেছে। তবে এতে লজ্জার কিছু নেই।’

প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানের ত্রুটি সম্পর্কে তথ্য নেওয়ার জন্য উড়োজাহাজ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান বোয়িং এবং এয়ারক্রাফট ইঞ্জিন সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান জেনারেল ইলেকট্রিক (জিই) এর কাছ থেকে তথ্য নিতে মন্ত্রণালয়কে পরামর্শ দিয়েছে সংসদীয় কমিটি।

"