সিলেটে বন্ধুর হাতে যুবক খুন, আটক ১

প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর ২০১৬, ০০:০০

সিলেট প্রতিনিধি
ADVERTISEMENT

সিলেট নগরীর জিন্দাবাজারে প্রকাশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মেজবাহ উদ্দিন (২২) নামে এক যুবককে হত্যা করেছেন তার বন্ধু। গত শনিবার রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মেজবাহর বন্ধু রমজানকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত মেজবাহ উদ্দিনের বাড়ি ছাতক দোয়ারাবাজারের চন্ডিপুর গ্রামে। তিনি ২০১৪ সালে নগরের মিরের ময়দান এলাকাস্থ কমার্স কলেজে এইচএসসি পাস করেন। এরপর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ না পাওয়ায় তিনি আর পড়ালেখা চালিয়ে যাননি। এরপর তিনি বিদেশ যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

পুলিশ সূত্রে জানায়, নগরের জিন্দাবাজারের একটি দোকানে বসে মেজবাহ ও তার বন্ধু রমজান আড্ডা দিচ্ছিলেন। এ সময় তাদের বন্ধু কবীর ওই খানে গিয়ে মেজবাহকে খোঁজাখুঁজি করেন। এ সময় মেজবাহ ও কবীরের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে কবীর তার সঙ্গে থাকা দা দিয়ে মেজবাহর গলার বাম পাশে আঘাত করলে মেজবাহ মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরবর্তীতে স্থানীয়রা মেজবাহকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, হামলাকারী কবীরের সিলেট নগরের কাজী ম্যানশনে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মেজবাহ উদ্দিনের গলার বাম পাশের অংশ কাটা পড়ে গেলে অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে। খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহেল আহমদ জানান, প্রকাশ্যেই মেজবাহ উদ্দিনকে হত্যা করেছেন তার বন্ধু। তবে এ ব্যাপারে এখনো প্রত্যক্ষদর্শীদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় পুলিশ নিহত মেজবাহর বন্ধু রমজানকে আটক করেছে। মেজবাহ নগরীর মজুমদারি শ্রাবণি কোনাপাড়া ৫৪ নম্বর বাসায় সপরিবারে বসবাস করে আসছিলেন। মেজবাহ তার পরিবারের একমাত্র ছেলে বলে জানান তার আরেক বন্ধু মদন মোহন কলেজের শিক্ষার্থী সাঈদ মাহবুব।

"