নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহারের অভিযোগ

ফেনীতে বিশ্বব্যাংকের টাকায় চলমান প্রকল্পের কাজ বন্ধ

প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর ২০১৬, ০০:০০

ফেনী প্রতিনিধি
ADVERTISEMENT

ফেনীর সোনাগাজীতে বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় চলমান চারটি প্রকল্পের কাজ স্থগিত করে দিয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য রহিম উল্যাহ। তবে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন না করে কাজ শুরু করায় এই সংসদ সদস্য ক্ষোভ প্রকাশ করে কর্মকর্তাদের মারধর করেন এবং পরে কাজ স্থগিতের নির্দেশ দেন। তবে এমপি রহিম উল্যাহ বলেছেন, ‘জনগণের অভিযোগের ভিত্তিতে তিনি নি¤œমানের উপকরণ দিয়ে করা এ কাজ বন্ধ করেছেন।

সোনাগাজী উপজেলার চারটি গ্রামে বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি) চারটি ‘স্কুল কাম সাইক্লোন সেন্টার’ নির্মাণকাজ বাস্তবায়ন করছে। গত শনিবার প্রকল্প এলাকায় গিয়ে সংসদ সদস্য রহিম উল্যাহ এ ঘটনা ঘটান। এসএসএই জয়েন্ট ভেঞ্চার প্রকল্পের প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর রতন বণিক বলেন, বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে ফেনীর সোনাগাজীর শুলখালী, সরাজপুর, রঘুনাথপুর ও পালগিরি গ্রামে চারটি ‘স্কুল কাম সাইক্লোন সেন্টারের’ নির্মাণকাজ চলছে।

শনিবার সকালে ফেনী-৩ আসনের (সোনাগাজী-দাগনভূঞা) সংসদ সদস্য রহিম উল্যাহ সরেজমিনে প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন করেন বলে রতন জানান। রতন বলেন, ‘তিনটি গ্রামের কাজ পরিদর্শন শেষে দুপুরে এমপি সাহেব শুলাখালী এলাকায় কাজ পরিদর্শনে যান। এ সময় চলমান প্রকল্পগুলোর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়নি কেন জানতে চেয়ে সেখানে উপস্থিত বিশ্বব্যাংকের এসএসএই প্রকল্পের প্রতিনিধি মো. মহসিন ও প্রজেক্ট সুপারভাইজার গোলাম রাব্বানির সঙ্গে

তর্কে জড়িয়ে পড়েন সংসদ সদস্য। ‘একপর্যায়ে তিনি ওই দুই কর্মকর্তাকে চড়-থাপ্পড় দেন। পরে এমপির সঙ্গে থাকা লোকজন ওই দুই কর্মকর্তাকে উপর্যুপরি মারধর করেন। এরপর প্রকল্পের সব কাজ স্থগিত করে প্রতিটি কর্ম এলাকায় দলীয় লোক স্থাপন করে কাজ শুরু করার নির্দেশ দেন তিনি।

এমপির নির্দেশ ছাড়া কাজ শুরু করলে পরিণাম ভয়াবহ হবে বলে প্রকল্প কর্মকর্তাদের হুমকি দেন সংসদ সদস্য, বলেন রতন। ‘সংসদ সদস্যের নির্দেশের পর কাজ বন্ধ রাখা হয়েছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষতে জানানো হয়েছে।’

তারা স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানান রতন বণিক। প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর রতন বণিক আরো জানান, প্রকল্প এলাকায় ইতোমধ্যে সরাজপুরে ৫৯ পিলারের মধ্যে ৫৫টি, পালগিরিতে ২৯টি পিলার, রঘুনাথপুরে ২২টি পিলার ও শুলাখালীতে ৫টি পিলারের পাইলিং শেষ হয়েছে। প্রায় ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ৭টি সাইক্লোন সেন্টার নির্মাণের কাজ চলছে। কাজগুলো বাস্তবায়ন করছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি)।

সোনাগাজী মডেল থানার এসআই ডালিম কুমার মজুমদার জানান, সংসদ সদস্য প্রকল্প এলাকা পরিদর্শনের সময় পুলিশ ফোর্স সঙ্গে ছিল। কর্মকর্তাদের আহত হওয়ার বিষয়টি তিনি শুনেছেন। আহত কর্মকর্তারা বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন বলেও তিনি শুনেছেন।

ফেনীর সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) আমিরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বলেও তিনি জানান।

সংসদ সদস্য রহিম উল্যাহ কর্মকর্তাদের চড়-থাপ্পড় ও ভিত্তিপ্রস্তরের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, নি¤œমানের কাজ হওয়ায় স্থানীয়দের অভিযোগ পেয়ে তিনি সরেজমিনে পরিদর্শন করে চলমান কাজগুলো ‘স্থগিত করে দিয়েছেন’। এসব কাজের বিষয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রী, এলজিইডিমন্ত্রী, বিশ্বব্যাংকসহ সংশ্লিষ্ট দফতরে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান। তার দাবি, তিনি কোনো লোককে মারেননি, তার প্রতিপক্ষ এক নেতার লোকজন তাদের মেরেছে।

"