মেধাবীরা রাজনীতিতে আসুন

ওবায়দুল কাদের

প্রকাশ : ২৭ নভেম্বর ২০১৬, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক
ADVERTISEMENT

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আওয়ামী লীগে দুর্নীতি ও অপরাজনীতির শিক্ষা দেওয়া হয় না। তিনি বলেন, টাকা-পয়সা ও সম্পদ অর্জন রাজনীতি নয়। আর টাকা-পয়সা ও বিত্ত-সম্পদ বড় সম্পদ নয়। সবচেয়ে বড় সম্পদ হলো মেধা। আর তা কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে অর্জন করতে হয়। ওবায়দুল কাদের গতকাল দুপুরে রাজধানীর গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ মিলনায়তনে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন তিনি।

গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ফারজানা আক্তার সুপর্ণার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর নিশাত পারভীন। সম্মেলনে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ। প্রধান বক্তা ছিলেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন। ওবায়দুল কাদের বলেন, মেধাবী ছাত্রছাত্রীরা রাজনীতিবিদ হতে চায় না। ভালো ছেলেমেয়েরা রাজনীতিতে না এলে খারাপ লোকরা রাজনীতিতে জায়গা করে নেবে এবং এমপি-মন্ত্রী হবে।

তিনি বলেন, ‘মেধাবীরা রাজনীতিতে না এলে মেধাহীনরা এবং হাইব্রিডরা রাজনীতি দখল করে নেবে। আর সে রাজনীতি সাধারণ মানুষের কোনো উপকারে আসবে না।’ ওবায়দুল কাদের বলেন, রাজনীতিকে ঘৃণা করলে নিজেরই ক্ষতি করা হবে। কারণ একসময় নিজের দেশ ছেড়ে বিদেশে চলে যেতে ভালো লাগবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের মতো রাজনীতিতেও শুদ্ধাচার কৌশল গ্রহণ করা উচিত। কেননা নিজে শুদ্ধ না হলে অন্যকে শুদ্ধ হওয়ার পরামর্শ দিয়ে কোনো লাভ হবে না। এ বিষয়ে তিনি আরো বলেন, নিজে দুর্নীতি করলে অন্যকে দুর্নীতি বন্ধ করার কথা বললে কোনো লাভ হবে না। তাই আগে নিজেকে দুর্নীতি বন্ধ করতে হবে, তারপর অন্যকে দুর্নীতি না করার কথা বলতে হবে।

নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ বিশ্বের বিস্ময় হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশের অসাধারণ অর্জনের রূপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর বিগত ৪১ বছরের সাহসী রাজনৈতিক, দক্ষ প্রশাসক, ঝুঁকির মধ্যে থাকা সফল কূটনীতিকের নাম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর আগে ওবায়দুল কাদের পতাকা, বেলুন ও কবুতর উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

 

 

"