দেশজুড়ে বিদ্যুৎ সঞ্চালনের সক্ষমতা বাড়ানোর উদ্যোগ

প্রকাশ : ২৭ নভেম্বর ২০১৬, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক
ADVERTISEMENT

দেশে বিদ্যুৎ সঞ্চালনের সক্ষমতা বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। সারাদেশে নির্ভরযোগ্য ও নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের লক্ষ্যে সঞ্চালন অবকাঠামো নির্মাণ, সম্প্রসারণ, ক্ষমতাবর্ধন এবং সংস্কার করা হবে। সেজন্য তিনটি বৃহৎ প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে সরকার। আর ওসব প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে সারাদেশে গ্রামীণ এলাকায় সঞ্চালন লাইন সম্প্রসারণের পাশাপাশি বিদ্যমান বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থার উল্লেখযোগ্য উন্নতি ঘটবে। বিদ্যুৎ বিভাগ সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, সর্বশেষ একনেক সভায় ১৩ হাজার ৭০৩ কোটি টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ের পাওয়ার গ্রীড নেটওয়ার্ক স্ট্রেনদেনিং প্রজেক্ট আন্ডার পিজিসিবি শীর্ষক প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়। ওই প্রকল্পের আওতায় ৪০০ কেভি নতুন সঞ্চালন লাইন নির্মাণ, ৪০০ কেভি বিদ্যমান সাবস্টেশন সম্প্রসারণ এবং ১৩২/৩৩ কেভির ৫টি সাবস্টেশন সংস্কার করা হবে। প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয়ের মধ্যে সরকারের তহবিল থেকে ৩ হাজার ৭২৯ কোটি ২৫ লাখ টাকা এবং সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ব্যয় হবে ২৬৬ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। বাকি ৯ হাজার ৭০৭ কোটি ৬২ লাখ টাকা চীন সরকারের কাছ থেকে বৈদেশিক সহায়তা পাওয়া যাবে। জুলাই ২০১৬ থেকে জুন ২০২১ মেয়াদে বিদ্যুত বিভাগ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। তাছাড়াও একনেক সভায় গ্রামীণ এলাকায় বিদ্যুত ব্যবস্থার উন্নয়ন বিশেষ করে বিতরণ ব্যবস্থার ক্ষমতাবর্ধন ও পুনর্বাসনের জন্য আরো দু’টি প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়। ওই দু’টি প্রকল্প হলো- বিতরণ ব্যবস্থার ক্ষমতাবর্ধন, পুনর্বাসন ও নিবিড়করণ (ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগ) প্রকল্প। সেটি বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৩ হাজার ৪০৩ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। আর বিতরণ ব্যবস্থার ক্ষমতাবর্ধন, পুনর্বাসন ও নিবিড়করণ (রাজশাহী, রংপুর, খুলনা ও বরিশাল বিভাগ) প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৩ হাজার ৭৭ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। ওসব প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে মোট সাড়ে ৯ লাখ নতুন গ্রাহক বিদ্যুত সংযোগ পাবেন।

সূত্র জানায়, বিদ্যুৎ সঞ্চালনের সক্ষমতা বাড়াতে একই এলাকায় যাতে পিডিবি এবং আরইবির সংযোগ না থাকে সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে প্রধানমন্ত্রী পরামর্শ দিয়েছেন। তাঁর মতে একই এলাকায় পিডিবি ও আরইবির সংযোগ থাকলে তাতে প্রতিষ্ঠান দু’টির মধ্যে সাংঘর্ষিক অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে।

এ প্রসঙ্গে পরিকল্পনামন্ত্রী জানিয়েছেন, এখন যে পরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে তা যদি ঠিকমত সঞ্চালন করা যায় তাহলে বিদ্যুতের অনেক অপচয় ও সিস্টেম লস কমে যাবে। তাছাড়া বর্তমানে প্রতিটি গ্রামেই ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প স্থাপিত হচ্ছে। ফলে বিদ্যুত সঞ্চালনের সক্ষমতা বাড়ানো দরকার। সেই লক্ষ্যেই প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

 

 

"