রাজশাহীতে খাবার খেয়ে গৃহকর্তার মৃত্যু, কর্মী পলাতক

প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০১৬, ০০:০০

রাজশাহী প্রতিনিধি
ADVERTISEMENT

রাজশাহীতে খাবার খেয়ে আব্দুল হান্নান (৭২) নামে এক গৃহকর্তার মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে ওই বাড়ির গৃহকর্মী পলাতক রয়েছেন। পুলিশের ধারণা, গৃহকর্মী খাবারে চেতনানাশক দ্রব্য মিশিয়ে দিয়েছিল। পুলিশের মতে খাদ্যের সঙ্গে চেতনানাশক মিশিয়ে গৃহকর্মী এ ঘটনা ঘটিয়েছে। সে কারণে সে ঘটনার পরপরই পালিয়ে গেছে।

গতকাল শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় আবদুল হান্নানের মৃত্যু হয়। নিহত আবদুল হান্নানের বাড়ি মহানগরীর রাজপাড়া থানার মহিষবাথান এলাকায়। তিনি অগ্রণী ব্যাংকের অবসরপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপক। একই খাবার খেয়ে তাঁর স্ত্রীও জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। বর্তমানে তাঁর জ্ঞান ফিরলেও তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে তাঁর অবস্থা আশঙ্কামুক্ত বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমান উল্লাহ বলেন, আবদুল হান্নানের তিন মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। একমাত্র ছেলে ঢাকায় চাকরি করেন। তিনি স্ত্রী ঝর্ণা বেগমকে (৬০) সঙ্গে নিয়ে বাড়িতে থাকতেন। সম্প্রতি আবদুল হান্নান তাঁর বাড়িতে অজ্ঞাত এক নারীকে গৃহকর্মীর কাজ দেন। গত বুধবার সকালের নাশতায় ওই গৃহকর্মী চেতনানাশক মিশিয়ে দেয়। এ খাবার খেয়ে আবদুল হান্নান ও তাঁর স্ত্রী ঝর্ণা বেগম জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। এই সুযোগে ওই গৃহকর্মী বাড়ি থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ মূল্যবান মালামাল নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে প্রতিবেশীরা আবদুল হান্নান ও তাঁর স্ত্রী ঝর্ণা বেগমকে রামেক হাসপাতালে নিয়ে যান। ওসি জানান, হাসপাতালের চিকিৎসায় ঝর্ণা বেগম কিছুটা সুস্থ হলেও আবদুল হান্নানের অবস্থার আরো অবনতি হয়। তাই ওই দিনই তাঁকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে তিনি মারা যান। ওসি জানান, পলাতক গৃহকর্মীর সন্ধানে পুলিশ কাজ শুরু করেছে। শিগগিরই তাঁকে ধরা যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

"