পল্লীবিদ্যুৎ অফিস এবার নিজেই ধরা

প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর ২০১৬, ০০:০০

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি
ADVERTISEMENT

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের ১৩ মাসের বকেয়া বিল পরিশোধ না করায় লাইন কেটে দিয়েছে ঈশ্বরগঞ্জ পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ড (পিডিবি)। গতকাল সোমবার সকালে এই সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। পিডিবির আবাসিক প্রকৌশলী নিরঞ্জন কুন্ডু ওই লাইন বিচ্ছিন্ন করেন।

পিডিবি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পৌর সদরের পাগলা বাজারে অবস্থিত ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৩-এর ঈশ্বরগঞ্জ সাব-জোনাল অফিস গত ১৩ মাসে ৫৬ হাজার ৬৭৪ টাকা বকেয়া আদায়ে বারবার নোটিশের পরও পিডিবির বিল পরিশোধ করেনি। বকেয়া আদায়ে পিডিবির ঈশ্বরগঞ্জ আবাসিক প্রকৌশলীর কার্যালয়ে চাপ বাড়তে থাকায় গতকাল সকাল সাড়ে ৯টায় পল্লী বিদ্যুতের সাব-জোনাল অফিসের লাইনটি কেটে দেওয়া হয়।

পল্লীবিদ্যুতের এক গ্রাহক সমালোচনা করে বলেন, গ্রাহকের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার আগে তারা যেন নিজের চরকায় তেল দেন। পল্লী বিদ্যুতে ভুয়া বিল, নানা চার্জে তো গ্রাহকরা নাকাল। একদিন বিল পরিশোধে দেরি হলেই নানাভাবে গ্রাহককে হেনস্তা হতে হয়। অথচ তারা নিজেরাই এত বিল বাকি রাখে। এতে তাদের লজ্জা হওয়া উচিত।

ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৩-এর ঈশ্বরগঞ্জ সাব-জোনাল অফিসের এজিএম গোলজার হোসেন বিষয়টি অস্বীকার কওে মোবাইলের সংযোগটি কেটে দেন।

পিবিডির আবাসিক প্রকৌশলী নিরঞ্জন কু-ু জানান, দীর্ঘ ১৩ মাস ধরে অফিসটির বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় সংযোগ সাময়িকভাবে বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। বিল পরিশোধ হলে সংযোগটি আবার দিয়ে দেওয়া হবে।

ময়মনসিংহ পল্লীবিদ্যুৎ অফিস-৩ এর জেনারেল ম্যানেজার যুবরাজ সিং পাল জানান, বিষয়টি শুনে তিনি আশ্চর্য হয়েছেন। একটি অফিসের বিল এভাবে বকেয়া থাকার কথা নয়। বিষয়টি তিনি খতিয়ে দেখবেন।

"