রুমানাদের প্রত্যাবর্তন

প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর ২০১৬, ০০:০০

খেলা প্রতিবেদক
ADVERTISEMENT

এশিয়া কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ৫৪ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ প্রমীলা ক্রিকেট দল। করেছিল অসহায় আত্মসমর্পণ। কাল দুর্দান্তভাবেই ফিরে এল রুমানা-জাহানারারা। দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিক থাইল্যান্ডকে ৫৩ রানে অলআউট করে টাইগ্রেসরা জিতেছে ৩৫ রানে। আজ একই ভেন্যুতে টুর্নামেন্টের তৃতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ নেপাল।

কাল ব্যাংককের এশিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি গ্রাউন্ডে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ৮৮ রান করে বাংলাদেশ।

দলীয় সর্বোচ্চ রান করেন সানজিদা ইসলাম। ৪৮ বলে ৩৮ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। ইনিংসে কোনো ছক্কা নেই, তবে চার আছে একটি। সানজিদা ছাড়া দুজনই কেবল দুই অঙ্কের ঘরে যেতে পেরেছেন। ফারজানা হক ৩১ বলে ১৫ এবং সালমা খাতুন ১২ বলে ১০ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন।

মামুলি পুঁজির পরও বাংলাদেশ জিতেছে বোলারদের সৌজন্যে। প্রথম ওভারেই থাইল্যান্ডের ইনিংসে জোড়া আঘাত হানেন পেসার জাহানারা।

তার চেয়েও বেশি বিধ্বংসী রূপে হাজির হন পান্না ঘোষ। করেছেন ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। ৪ ওভারে ৯ রান খরচায় এই পেসার তুলে নিয়েছেন ৪টি উইকেট। জয়ের জয়ে যথেষ্ট অবদান আছে রুমানারও। ৩.৩ ওভারে ৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট তুলে নিয়েছেন সফরকারী অধিনায়ক।

টাইগ্রেস পেসত্রয়ী তোপে রীতিমতো দিশেহারা থাইল্যান্ড। একটি উইকেট শিকার করেছেন খাদিজাতুল কুবরা-ও। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট খোয়াতে থাকে স্বাগতিকরা। শেষ অবধি থাইদের ইনিংস শেষ ওভার পর্যন্ত টেকেনি। আগের ওভারেই ৫৩ রানে গুটিয়ে যায় তারা।

"