দলীয় সভায় তোপের মুখে রওশন

প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর ২০১৬, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক
ADVERTISEMENT

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের মামলা প্রত্যাহারের বিষয়ে কথা না বলায় সভায় তৃণমূল নেতাদের ক্ষোভের মুখে পড়তে হয়েছে দলের জ্যেষ্ঠ কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদকে। গতকাল সোমবার রাজধানীর কাকরাইলে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে ওই সভায় ক্ষোভের মুখে পড়ে আবেগাপ্লুত কণ্ঠে তিনি বলেন, এরশাদের বিরুদ্ধে এত মামলায় স্ত্রী হিসেবে কষ্ট তারই বেশি। সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা রওশন দলীয় কর্মসূচিতে নিয়মিত না হলেও আগামী ১ জানুয়ারিতে দলের সমাবেশ সফলে কেন্দ্রীয় ও জেলা কমিটির নেতাদের এ যৌথসভায় স্বামী এরশাদের সঙ্গে ছিলেন।

গতকালের সভামঞ্চের মধ্যে বসা এরশাদের একপাশে ছিলেন স্ত্রী রওশন, অন?্যপাশে ছিলেন ভাই ও দলের কো-চেয়ারম?্যান জি এম কাদের। সভায় বক্তবে?্যর শুরুতে রওশন বলেন, ‘আমরা কারো ক্ষমতায় যাওয়ার সিঁড়ি হিসেবে ব্যবহার হব না।’ এরপর তিনি দেশে বিদ্যমান বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরতে থাকেন। এ সময় মঞ্চের পেছন থেকে দলের নেতারা এরশাদের মামলা প্রত্যাহারের বিষয়ে কিছু বলতে বলেন। কিন্তু তা উপেক্ষা করে দেশের বেকার সমস্যা নিয়ে কথা বলতে থাকেন রওশন। এ সময় সভায় উপস্থিত জেলার নেতারা ক্ষুব্ধ হয়ে হইচই শুরু করেন। এরশাদের উপস্থিতিতে কিছুক্ষণ বিশৃঙ্খল অবস্থা চলার পর মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমীন হাওলাদার সবাইকে শান্ত করেন।

হট্টগোলের পর রওশন বলেন, ‘আমি তোমাদের দুঃখ ও আবেগ বুঝি। তার (এরশাদ) মামলা প্রত্যাহারের বিষয়ে আমি না হলেও একশবার বলেছি। উত্তরে প্রধানমন্ত্রী শুধু করব করব বলে আশ্বাস দেন। তোমরা তোমাদের নেতার জন্য কষ্ট পাও, কিন্তু সে তো আমার স্বামী। আমার স্বামীর বিরুদ্ধে এতগুলো মামলা। তার কষ্ট আমার চেয়ে বেশি আর কে বুঝবে।’

এরপর তিনি বলেন, ‘আজ এই যৌথসভায় আমি কথা দিলাম দলের চেয়ারম্যানের মামলা প্রত্যাহারের দায়িত্ব আমার। এর জন্য যা যা করার প্রয়োজন হয়, আমি তাই করব।’ এ সময় এরশাদ বলেন, ‘তোমরা শান্ত হও। তোমাদের ভালোবাসায় আমি মুগ্ধ। তোমরা আমাকে এত ভালোবাস... আমার জীবন সার্থক।’ মিয়ানমারে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আশ্রয় দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ। প্রধানমন্ত্রীর বিমানের ত্রুটির বিষয়ে এরশাদ বলেন, দেশের সর্বত্র দুর্নীতি আর প্রশাসনিক দুর্বলতার কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে। অবিলম্বে দোষীদের চিহ্নিত করুন। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন।

"