ক্যাম্পাস সংবাদ

ডিআইইউতে অধ্যাপক ড. মো. গোলাম রহমানের একক আলোকচিত্র প্রদর্শনী শুরু

প্রকাশ : ০২ ডিসেম্বর ২০১৬, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক
ADVERTISEMENT

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে বাংলাদেশ তথ্য কমিশনের প্রধান তথ্য কমিশনার অধ্যাপক ড. মোঃ গোলাম রহমানের তিনদিনব্যাপী ( ১-৩ ডিসেম্বর) “রিদম” শীর্ষক একক আলোকচিত্র প্রদর্শনী আজ ১লা ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখে বিশ^বিদ্যালয়ের মিলনায়তনে শুরু হয়েছে। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ফটোগ্রাফিক সোসাইটির প্রতিষ্ঠার পাঁচ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগ এবং ডিআইইউ ফটোগ্রাফিক সোসাইটি যৌথভাবে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রথম আলোর সম্পাদক ও প্রকাশক মতিউর রহমান। বিশ^বিদ্যালয়ের ট্রাষ্টিবোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ সবুর খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও চলচ্চিত্র নির্মাতা এবং সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দিন ইউসুফ। বক্তব্য রাখেন মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. এ এম এম হামিদুর রহমান, রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী ড. এ কে এম ফজলুল হক, পরিচালক স্টুডেন্ট (এফেয়ার্স) সৈয়দ মিজানুর রহমান রাজু ও সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের প্রধান সেলিম আহমেদ, ডিআইইউ ফটোগ্রাফিক সোসাইটির কনভেনর এস এম আবদুর রাজ্জাক ও সভাপতি জাইম বিন তাশদীদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, প্রতিটি মানুষের ভিতর কিছু লুকায়িত সম্ভাবনা ও গুনাবলী থাকে সেগুলোকে প্রকাশ করার জন্য সুযোগ তৈরী করে দিতে হয়। বর্তমানে অনেক অপেশাদার ও ভাল ছবি তুলছেন পত্রিকায় ছবির গুরুত্ব অনেক বেশী । তিনি বলেন, তরুনরাই ভরসা, তরুনরাই ভবিষ্যত। তাই নতুন নতুন ভাল কাজের সন্ধান করতে হবে এবং তরুনদেরকে উৎসাহিত করতে হবে।

প্রফেসর ড. মোঃ গোলাম রহমান বলেন, ’জীবনকে সহজভাবে দেখতে চাই। অনেক সমস্যা সংকট থাকবে তার মধ্যে থেকেই চলতে হবে। তিনি আরও বলেন, ফটোগ্রাফি একটি আলাদা জগৎ, একটি আলাদা ভাষা। এটি সহজ ভাষায় মানুষের জীবনের কথা বলতে চায়।

প্রদর্শনীতে দ্যূতিময়, প্রাণোচ্ছল, রোমাঞ্চকর জীবনের স্মরণীয় ও দুর্লভ ছবি সমূহ স্থান পেয়েছে যা গত এক দশক ধরে ড. গোলাম রহমান দেশের ও দেশের সীমানা ছাপিয়ে বিশে^র বিভিন্ন দেশের ভাষা, সংস্কৃতি ও ভৌগলিক পরিবেশের বৈচিত্রপূর্ণ মানুষের জীবনধারা ও বৈশিষ্ট্য সমূহকে ফ্রেমে বন্দী করেছেন। তার এ সুন্দর দৃষ্টিনন্দন ছবিসমূহ যে কাউকেই ক্ষনিকের জন্য হলেও বিমোহিত, স্তম্ভিত ও ভাবনার জগতে নিয়ে যাবে এবং জীবনকে নতুনভাবে কল্পনা ও স্বপ্ন দেখাবে। প্রদর্শনী আগামী ৩ রা ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে এবং প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

"