ভিন্ন খবর

ধনীতম গ্রাম

প্রকাশ : ২৬ নভেম্বর ২০১৬, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক
ADVERTISEMENT

চীনের পূর্বে জিয়াংশু প্রদেশের অন্তর্গত হুয়াক্সি গ্রাম। এটিই চীনের সবচেয়ে ধনী গ্রাম। কারণ এখানকার ২০০০ বাসিন্দার প্রত্যেকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে আছে এক মিলিয়নের বেশি ইয়েন। আর ডলারে হিসাব করলে তা দাঁড়ায় ১ লাখ ৪৩ হাজারের বেশিতে। এখানকার প্রত্যেক পরিবারে সরকার থেকে বাড়ি এবং একটি গাড়িও বরাদ্দ রয়েছে। তবে শর্ত একটাই, যদি কেউ গ্রাম ছেড়ে একেবারে চলে যায়, একই সঙ্গে সে তার সব সম্পত্তিও হারায়।

এখানে রয়েছে হেলিকপ্টার ট্যাক্সি, থিম পার্ক, বিলাসবহুল হাইরাইজ বিল্ডিং। পর্যটকদের জন্য আন্তর্জাতিক মানের হোটেল। চীনের অন্যতম সেরা পর্যটনস্থল এই হুয়াক্সি। মজার ব্যাপার হলো, সবকিছু সমৃদ্ধ হলেও হুয়াক্সি আসলে একটি গ্রাম।

চীনের একজন সাধারণ কৃষকের চেয়ে ৪০ গুণ বেশি উপার্জন করেন এখানকার বাসিন্দারা। গ্রামটিতে সামাজিক নিয়মগুলো খুবই কড়াকড়ি ধরনের। গত মাসে এখানকার বাসিন্দারা তাদের এই কমিউনিটির ৫৫তম বার্ষিকী পালন করে। জিয়াংশু প্রদেশের জিয়াংজিন শহর থেকে এই গ্রামের সব প্রাশাসনিক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। এমনিতে জিয়াংশু প্রদেশ কৃষির জন্য বিখ্যাত। এই গ্রামটিও তার ব্যতিক্রম নয়। এছাড়া এই গ্রামে আছে দারুণ সব দর্শনীয় স্থান আর মনোরম প্রাকৃতিক দৃশ্য। কীভাবে একটি কমিউনিটি এক হয়ে দরিদ্র থেকে ধনীতে পরিণত হতে পারে তার প্রমাণ এই হুয়াক্সি গ্রাম। গোটা চীনের মধ্যে হুয়াক্সি গ্রাম তাই একটা উদাহরণ হয়ে আছে অনেক বছর ধরে।

এই গ্রামের বাসিন্দাদের যাতায়াতের জন্য নিজস্ব বিলাসবহুল পরিবহন কোম্পানি আছে। আছে নিজস্ব হেলিকপ্টার। গ্রামে যে থিম পার্ক আছে সেটি অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন। বিনোদনের জন্য এখানে সিডনি অপেরা হাউসও আছে। গ্রামে দারুণ একটি মিউজিয়ামও আছে। যেখানে ৮০০-এর বেশি দর্শনীয় বস্তু রয়েছে। গ্রামের সম্পদ আর সব নিয়মকানুন এখানকার নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিদের মাধ্যমেই নিয়ন্ত্রিত হয়। সাংহাই শহর থেকে মাত্র দুই ঘণ্টায় পৌঁছানো যায় এই গ্রামে। তবে গ্রামের নিজস্ব হেলিকপ্টার, ট্যাক্সি করে আসতে হবে। পাঁচ দশকেরও বেশি সময় ধরে হুয়াক্সি গ্রাম চীনের সবচেয়ে সম্পদশালী, রহস্যময় আর বিতর্কমূলক কমিউনিটি বলে পরিচিত হয়ে আছে।

সপ্তক ডেস্ক

 

 

"