এক হাজার শরণার্থী বহিষ্কার করছে বুলগেরিয়া

প্রকাশ : ২৭ নভেম্বর ২০১৬, ০০:০০

বিদেশ ডেস্ক
ADVERTISEMENT

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে সংঘর্ষের অভিযোগে ও শরণার্থী শিবিরে প্রতিবাদ মিছিল করায় বুলগেরিয়া সরকার ১০০০ শরণার্থীকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বুলগেরিয়ার তুর্কি সীমান্ত সংলগ্ন হারমানলি শরণার্থী শিবিরে পুলিশের সঙ্গে শরণার্থীদের সংঘর্ষ হয়। এতে ৪০০ শরণার্থীকে গ্রেফতার করে দেশটির পুলিশ। এরপরই দেশটির প্রধানমন্ত্রী শরণার্থী বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন। খবর আল-জাজিরার।

হারমানলি শিবিরে ৩০০০ শরণার্থী শিবির রয়েছে। স্থানীয় গণমাধ্যমে বলা হয় ওই শিবিরে চর্ম রোগ ছড়িয়ে পড়ছে। এ কারণে কর্তৃপক্ষ শরণার্থীদের চলাফেরার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। আর এতে ক্ষুব্ধ হয় সেখানকার আফগান শরণার্থীরা। তারা পুলিশের বাধা ডিঙ্গিয়ে তাদের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। পুলিশ সহিংসতা দমন করতে গুলি ও রাবার বুলেট ছুড়ে। এতে ২৯ পুলিশ ও ২০ শরণার্থী আহত হয়।

পরে শুক্রবার পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে সহিংসতা সৃষ্টিকারী ৪০০ শরণার্থীকে গ্রেফতার করে। যাদের অধিকাংশ আফগান তরুণ।

এ ঘটনার পর বুলগেরিয়ার প্রধানমন্ত্রী হাঙ্গেরি সফর বাতিল করে। পরে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি বলেন, যারা অপরাধ করেছেন তাদেরকে ছাড় দেয়া হবে না। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে তাদেরকে আফগানিস্তানে পাঠিয়ে দেয়া হবে। । তবে শিবিরের সিরিয়ান শরণার্থীদের রাখা হবে। তাদের বহিষ্কার করবে না বলে জানিয়েছে সরকার।

 

 

"