ফের শীর্ষে ঢাকা

প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর ২০১৬, ০৯:০৭ | আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০১৬, ১০:৫৭

অনলাইন ডেস্ক
ADVERTISEMENT

সাকিব আল হাসানের ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপিএল জয়ের অভিযান আরো জোরদার হলো বরিশাল বুলসের বিরুদ্ধে ছয় উইকেটের অনায়াস জয়ে। কেননা এ  জয় তাদের সেরা চারের পথে এগিয়ে রাখলো।

ঢাকা এ নিয়ে নয় ম্যাচে ষষ্ঠ জয়ে আবারো পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে ফিরলো। যদিও সমান ছয় জয় আছে খুলনা টাইটান্সেরও। কিন্তু রান রেটে পিছিয়ে থাকায় দ্বিতীয় স্থানে আছে খুলনার দলটি। অপরদিকে নয় ম্যাচে ষষ্ঠবারের মতো হারল বরিশাল। বিপিএলের চতুর্থ আসরে দুই ম্যাচেই ঢাকার কাছে হারল বরিশাল। কোনোভাবেই পরাজয়ের বৃত্ত ভাঙতে পারছে না মুশফিকুর রহিমের দল যাদের এটি আবার টানা পঞ্চম হার।

বরিশাল রোববার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে প্রথমে ব্যাট করে ছয় উইকেটে ১৩২ রান তোলে। জবাবে ১৯.২ ওভারে ছয় উইকেটে ১৩৫ রান করে ম্যাচ জিতে নেয় ঢাকা। চার বল আগে আসা জয়ে ম্যাচ সেরা হন সাকিব আল হাসান।

জয়ের জন্য ১৩৩ রানের লক্ষ্যটা ঢাকার শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনের জন্য সহজ গন্তব্যই ছিল। যদিও তাইজুল ইসলামের করা ইনিংসের তৃতীয় বলেই বোল্ড হন মেহেদী মারুফ (১)। সাকিব ও কুমার সাঙ্গাকারা দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ৫২ রান যোগ করেন। পাঁচ রানের ব্যবধানে তাদের বিদায় কিছু সময়ের জন্য ম্যাচে ফিরিয়েছিল বরিশালকে। সাঙ্গাকারা ৩৩ বলে ৩২ রান করেন। ২১ বলে ২২ রান করেন সাকিব।

মূলত চতুর্থ উইকেটে নাসির হোসেন ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের বিচক্ষণ ব্যাটিং ঢাকাকে জয়ের কাছাকাছি নিয়ে যায়। তারা ৫৩ রানের জুটি গড়েন। ২৯ বলে ৩৪ রান করে মনির হোসেনের বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়েন নাসির। দলকে জয় থেকে পাঁচ রান দূরে রেখে আউট হন মোসাদ্দেক। তিনি ২৩ রান করেন। পরে শেষ ওভারে চার মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন ডোয়াইন ব্র্যাভো। প্রসন্ন ১০, ব্র্যাভো অপরাজিত ছয় রান করেন। বরিশালের পক্ষে তাইজুল ১৯ রানে দুটি উইকেট নেন। এছাড়া এনামুল হক, কামরুল ইসলাম রাব্বি, মনির হোসেন একটি করে উইকেট পান। 

এরআগে টসে জিতে ব্যাট করতে নামা বরিশাল রান তুলতে গিয়ে গোটা ইনিংস জুড়েই সংগ্রাম করেছে। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পতনের কারণে বড় স্কোর গড়তে পারেনি দলটি। তাছাড়া ঢাকার পেসার আবু জায়েদ রাহীর কৃপণ বোলিংও ভুগিয়েছে বরিশালকে। রাহী চার ওভারে ১২ দিয়ে নিয়েছেন এক উইকেট।

দলীয় ছয় রানে রাহীর বলে শাহরিয়ার নাফিস (৩) ক্যাচ দিয়ে ফিরেন। এরপর দিলশান মুনাবীরা (১০) ও জীবন মেন্ডিস (৭) রানআউট হলে ৩৭ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে বরিশাল। সেই ধাক্কা কাটিয়ে উঠে বরিশাল চতুর্থ উইকেটে অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম ও নাদিফ চৌধুরীর ৪৭ রানের জুটিতে। ৩০ বলে ৩৬ রান করে সাকিবের বলে বোল্ড হন মুশফিক। সঙ্গীর বিদায়ের পর নাদিফও স্থায়ী হননি। ২১ রান করে তিনি বোপারার শিকার হন।

শেষদিকে বরিশালের স্কোরটা একশ’ ছাড়িয়েছে দুই বিদেশির কল্যাণে। রুম্মান রেইস ও থিসেরা পেরেরা ৩৪ রানের জুটি গড়েন। রুম্মান রেইস ১৩ বলে অপরাজিত ২৫ রান (২ চার, ১ ছয়) করেন। থিসেরা পেরেরা ১৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। ঢাকার পক্ষে রাহী, সাকিব, ডোয়াইন ব্র্যাভো, বোপারা একটি করে উইকেট পান।