পদ্মা সেতু চালু হলে এ অঞ্চলের মানুষ আর গরিব থাকবে না : সেতুমন্ত্রী

প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০১৬, ১৭:৩৪

অনলাইন ডেস্ক
ADVERTISEMENT
ফাইল ছবি

২০১৮ সালে পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর আর্থ সামাজিক অবস্থার বৈপ্লবিক পরিবর্তন ঘটবে। এ অঞ্চলের মানুষ গরিব থাকবে না। শুধু জিডিপিই বাড়বে না, পদ্মা সেতু দেশের সম্মান বাড়াবে। বৃহস্পতিবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার ভাগ্যকূল হরেন্দ্র লাল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন সড়ক পরিবেহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

মন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণে বিশ্ব ব্যাংক আমাদেরকে চোর অপবাদ দিয়ে চলে গিয়েছিল। বিশ্ব ব্যাংকের টাকা ছাড়াই জননেত্রী শেখ হাসিনা সাহসী ভূমিকা নিয়ে ৩০ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ের পদ্মা সেতু নির্মাণের কাজে হাত দেন। তিনি বলেন, আমরা বীরের জাতি, তা পদ্মা সেতু নির্মাণ করে আবার প্রমাণ করেছি। নদীর উপর সেতু নির্মাণের চেয়ে  বিষয়টি ছিল সন্মানের। এটা আমাদের প্রেস্টিজ ইস্যু।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এ বছর রিলিফ চুরির কোনো অভিযোগ নেই। পুনর্বাসন না হওয়া পর্যন্ত বন্যার্তদের সাহায্য দেওয়া হবে। এ সময় দলীয় নেতাকর্মীদেরকে তিনি অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। তিনি ব্যানার, ফেস্টুনে বড় বড় ছবি না দিয়ে তিনি নেতাকর্মীদের কাজের মাধ্যমে স্মরণীয় হওয়ার পরামর্শ দেন।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ফজলে আজিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ সম্পাদক ডা. বদিউজ্জামান ডাবলু, স্থানীয় সাংষদ সুকুমার রঞ্জণ ঘোষ, অ্যাডভোকেট মৃনাল কান্তি দাস এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ লুৎফর রহমান, সহকারী পুলিশ সুপার মো. শামসুজ্জামান বাবু এবং  শ্রীনগরের ইউএনও যতন মার্মা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন, মনির হোসেন মিটুল, হাজী নেছারউল্লাহ সুজন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বন্যার্ত এক হাজার ৯৫ জনের মাঝে নগদ টাকা, চাল, চিড়া, চিনি এবং পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরণ করা হয়।