সত্যি ভালবাসে সে?

প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০১৬, ১৩:৪৯

অনলাইন ডেস্ক
ADVERTISEMENT

মানুষকে বোঝা খুবই কঠিন একটি কাজ। তবু জীবনের প্রয়োজনে অনেক সময়ই সিদ্ধান্ত নেবার আগে বুঝে নিতে হয় ভালবাসার মানুষটিকে। পুরোপুরি বিশ্বাস না থাকলে অনেক সময়ই পিছিয়ে পড়তে হয়। হয়তো মানুষটা ঠিকই ছিল, কিন্তু সংশয়, সন্দেহ আমাদের পথ আগলে রাখে, দ্বিধায় ফেলে। দ্বিধা থাকবেই। দ্বিধায় পড়ে দেরী করে ফেললেই বিপদ! আসুন জেনে নিই, ভালবাসার মানুষটি আসলেই আপনাকে ভালবাসে কিনা, কীভাবে চিনে নেবেন সত্যিকারের ভালবাসা!

১। সে আপনার মূল্যবোধকে শ্রদ্ধা করে

মৌ ভালবেসেছিল দ্বীপকে। দ্বীপ সবসময় তার ভাবনাকে শ্রদ্ধা করত। ভালবাসার মানুষটির কী ভাল লাগে আর কী ভাল লাগে না তার খেয়াল রাখত। দ্বীপ কখনোই মৌ এর মতামতকে হেসে উড়িয়ে দিত না। বরং ভেবে দেখত। যুক্তি দিয়ে বোঝার চেষ্টা করত। মৌ এর প্রশংসা শুনলে দ্বীপ খুব খুশী হয়। দ্বীপ চায়, মৌ তার ক্যারিয়ারে অনেক ভাল করুক, সফল হোক। এটাই সত্যিকারের ভালবাসা।

২। সে তার ভবিষ্যত পরিকল্পনায় আপনাকে অংশ মনে করে

লিন্ডার প্রেমিকের নাম জয়। লিন্ডা খুবই খুশী হয়েছিল যখন জয় তাকে তাদের পারিবারিক অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানায়। জয় তার ভবিষ্যত সব পরিকল্পনায় লিন্ডাকে অংশীদার করে, তার মতামত নেয়। নিজের স্বপ্নগুলোকে সে লিন্ডার স্বপ্নের সাথে মিলিয়ে এগিয়ে নিয়ে যেতে চায়। সে সব কথায় 'আমি'র পরিবর্তে ব্যবহার করে 'আমরা'।

৩। আপনিই তার 'Priority'

লিপিকা জানে না কখন সে অর্নবের জীবনে হয়ে উঠেছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। অর্নব তার সব কাজের মাঝে সবচেয়ে গুরুত্ব দেয় তার সাথে সময় কাটানোকে। লিপিকার কাছ থেকে পাওয়া সবকিছুই তার কাছে অমূল্য। লিপিকাকে অর্নব যতটা বিশ্বাস করে ততটা করে না আর কাউকে। মনে থেকে ভালও না বাসলে কেউ তার জীবনে এতটা জায়গা আর কাউকে দিয়ে দেয় না!

৪। তিনি আপনাকে মিস করেন এবং আপনি মিস করলে তার মূল্যায়ণ করেন

সৌরভ চাকরি নিয়ে এখন ঢাকার বাইরে। দোলার সাথে আর আগের মত দেখা হয় না তার। ছুটির দিনে সে চলে আসে ঢাকায়। দোলা তাকে খুবই মিস করে। তাই দোলা যাতে মন খারাপ না করে সেজন্য কাজের ফাকে ফাকে ফোন দিয়ে খোঁজ নেয়, বেশী ব্যস্ত থাকলে পাঠায় ছোট্ট একটা মেসেজ। এতটা দূরে থেকেও সে দোলাকে কখনো একা বোধ করতে দেয় না।

৫। আপনি খুশী হলেই সে খুশী

ভালবাসার মানুষের মুখে আনন্দের হাসি দেখার চেয়ে সুখের আর কি আছে? মিতার অনেক সখের সাথেই মেলে না আনন্দের পছন্দগুলো। আনন্দ ফুল একেবারেই ভালবাসে না। কিন্তু মিতা ফুল পেলে মহাখুশী। আনন্দ তাই রোজ একটা গোলাপ কেনে, মিতার প্রিয় রঙের গোলাপ। মিতা ভালবাসে চকোলেট। পোশাক, স্টাইল, কথা বলার ধরণ সব কিছুই যেন আর দশটা মেয়ের মত নয়। তবু আনন্দের ভালও লাগে। মিতা যেমন তাকে তেমন করেই ভালবাসে আনন্দ।

৬। সে আপনার জন্য উদ্বিগ্ন হয়

ডোনার বাড়ি ফিরতে দেরি দেখে ধ্রুব ৩০ মাইল ড্রাইভ করে পৌঁছে গেল তার শুটিং স্পটে। নিজে সে অসুস্থ। কিন্তু প্রিয় মানুষের জন্য উদ্বিগ্নতা তাকে বিছানায় থাকতে দিল না। সে শুধু দুশ্চিন্তাই করে না, সে দায়িত্ব নেয়। নিজের গন্ডিকে ভেঙ্গে সে এগিয়ে যায়। তার প্রথম চিন্তা ডোনার সুরক্ষা।

৭। তার ইগো আপনার বন্ধু, শত্রু নয়

ঋতুকে কেউ আজেবাজে কথা বলবে সুমন এটা কখনোই মেনে নেয় না। সে বুদ্ধিমান, আবেগের চাইতে যুক্তির গুরুত্বই তার কাছে বেশী। তাই বলে অপমান সহ্য করে না সে। ঋতুর সম্মান রক্ষা করাও সে তার দায়িত্ব মনে করে।

গল্পে গল্পে বলা কথাগুলো হয়ত বাস্তবে হয় না বলে মনে হচ্ছে। কিন্তু এগুলো সুন্দর সম্পর্কে এই ৭টি ইতিবাচকতা থাকবেই। মনোবিজ্ঞানী জাফরি বার্ণস্টাইন পি এইচ ডি তার গবেষণাপ্রসূত এই ফিচার তুলে ধরেন 'Psychology today' তে। তিনি মনে করেন, দুই পক্ষ থেকেই থাকতে হবে এই ইতিবাচকতা। আর এভাবেই সম্পর্ক দীর্ঘজীবী হয়, হয় সুমধুর।