গর্ভকালীন রক্ত স্বল্পতা দূর হবে

প্রকাশ : ০৯ আগস্ট ২০১৬, ১৬:০২

অনলাইন ডেস্ক
ADVERTISEMENT

গর্ভধারণ প্রত্যেক নারীর জন্য খুব বিশেষ একটা সময়। এই সময় সব নারীকেই কিছু শারীরিক এবং মানসিক সমস্যার মধ্য দিয়ে যেতে হয়। শারীরিক সমস্যার মধ্যে রক্ত স্বল্পতা বেশ সাধারণ একটি সমস্যা। প্রায় ৫০% গর্ভবতী নারীরা রক্ত স্বল্পতা সমস্যায় ভুগে থাকেন। এমনকি যে সকল নারীদের আগে রক্ত স্বল্পতা ছিল না, তাদেরও এই সময় রক্ত স্বল্পতা দেখা দিতে পারে। গর্ভকালে রক্ত স্বল্পতা দেখা দিলে যে সকল লক্ষণ দেখা দিতে পারে- 

হালকা মাথাব্যথা এবং মাথা ঘোরানো

অনিয়মিত হার্ট বিট

শ্বাস কষ্ট হওয়া

চোখের নিচে কালি পড়া

অতিরিক্ত অবসাদ

মনোযোগে সমস্যা

দূর্বলতা

হাত-পা ঠান্ডা হয়ে যাওয়া ইত্যাদি।

ওষুধের পাশাপাশি কিছু খাবার খাওয়া প্রয়োজন এই রক্ত  স্বল্পতা দূর করার জন্য- 

১। বিট

 এক কাপ বিটের রস, এক কাপ আপেলের রস এবং এক চা চামচ মধু মিশিয়ে নিয়মিত পান করুন। এটি দিনে দুইবার পান করুন। আপেলে প্রচুর পরিমাণ আয়রন এবং বিটে ফলিক অ্যাসিড, পটাসিয়াম রয়েছে যা শরীরে রক্তের পরিমাণ বৃদ্ধি করে থাকে।

২। পালং শাক

শাক খেতে পছন্দ না করলেও গর্ভধারণ সময়ে খাদ্য তালিকায় পালং শাক রাখুন। চেষ্টা করুন সপ্তাহে তিনবার পালং শাক খাওয়ার। এটি আয়রনের অন্যতম উৎস।

৩। রেড মিট

অবাক হলেও সত্যি রেড মিট আয়রনের অন্যতম উৎস। গরুর কলিজায় ১.৪ মিলি গ্রাম প্রতি আউন্সে এবং গরুর মাংসে .৬ মিলিগ্রাম প্রতি আউন্সে আয়রন রয়েছে। যেখানে পালং শাকে .৮ মিলিগ্রাম প্রতি আউন্সে আয়রন থাকে। তাই গর্ভকালে গরুর কলিজা এবং গরুর মাংস নিয়মিত খাদ্য তালিকায় রাখুন।

৪। ড্রাই ফ্রুটস

আয়রনের অন্যতম উৎস হল ড্রাই ফ্রুটস। বিভিন্ন ড্রাই ফ্রুটস যেমন কাজু বাদাম, কিসমিস, কাঠ বাদাম, পেস্তা বাদাম ইত্যাদি খাবার নিয়মিত খাওয়ার চেষ্টা করুন।

৫। ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার

ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার যেমন কমলা, লেবু খাবার খাওয়া উচিত গর্ভকালে। ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার অথবা সাপ্লিমেন্টারি খেতে পারেন এই সময়ে। ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবারে প্রচুর পরিমাণ আয়রন রয়েছে যা রক্ত স্বল্পতা দূর করতে সাহায্য করে।

৬। খেজুর

এক কাপ দুধে দুটি খেজুর সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন। পরের দিন সকালে খালি পেটে এটি পান করুন। এছাড়া সকালে এক মুঠো খেজুর খালি পেটে খেতে পারেন। দুধের পরিবর্তে এক কাপ গরম পানিতে দুই-তিনটি খেজুর দুই- তিন ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। ঠান্ডা হলে এই পানি পান করুন। এটি শরীরে আয়রনের পরিমাণ বৃদ্ধি করে রক্ত স্বল্পতা দূর করে থাকে।

ভিটামিন সি এবং আয়রন সমৃদ্ধ খাবার রাখুন প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায়।