কমতে শুরু করেছে সয়াবিনের দাম

প্রকাশ | ১২ আগস্ট ২০১৬, ১২:৩৬

অনলাইন ডেস্ক

টানা পাঁচদিন ঊর্ধ্বমুখী থাকায় যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে দাম কমেছে সয়াবিনের। বুধবার শিকাগো বোর্ড অব ট্রেডে (সিবিওটি) ভবিষ্যত্ সরবরাহ চুক্তিগুলোর আওতায় দাম কমেছে কৃষিপণ্যটির। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, উৎপাদনের অনুকূল আবহাওয়া ও টানা পাঁচদিনের মুনাফা শেষে ব্যবসায়ীদের মধ্যে রফতানি চাহিদা কমায় নিম্নমুখী হয়ে উঠেছে পণ্যটির বাজার। তবে এদিন ভুট্টা ও গমের দাম ছিল বাড়তির দিকে।

যুক্তরাষ্ট্রে আজই সরকারিভাবে একটি শস্য প্রতিবেদন প্রকাশের কথা রয়েছে। প্রতিবেদনের সম্ভাব্য তথ্য-উপাত্তের পরিপ্রেক্ষিতে সয়াবিনের দাম কমলেও বেড়েছে ভুট্টা ও গমের।

সিবিওটিতে বুধবার নভেম্বরে সরবরাহের চুক্তিতে সয়াবিনের দাম কমেছে বুশেলে (প্রতি বুশেলে ৬০ পাউন্ড) ১০ সেন্ট। এদিন এখানে পণ্যটির মূল্য নেমে আসে প্রতি বুশেল ৯ ডলার ৭৮ সেন্টে। অন্যদিকে ডিসেম্বরে সরবরাহের চুক্তিতে ভুট্টার দাম বেড়েছে বুশেলে (প্রতি বুশেলে ৫৬ পাউন্ড) দেড় সেন্ট। বুধবার এখানে পণ্যটির মূল্য স্থির হয় প্রতি বুশেল ৩ ডলার ৩৪ সেন্টে। গমের দাম বেড়েছে বুশেলে সোয়া ৫ সেন্ট। বুধবার সিবিওটিতে প্রতি বুশেল গমের সর্বশেষ বিক্রয়মূল্য দাঁড়ায় ৪ ডলার ২২ সেন্টে।

জানা গেছে, চলতি সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্য পশ্চিমাঞ্চলে বৃষ্টিপাত হয়েছে। এ মাসের শেষ দিকে আরো বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। বর্তমান আবহাওয়াকে ফসলের বীজ বপনের জন্য বেশ উপযোগী বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। শিকাগোভিত্তিক ব্যবসায়ী লিন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস রয় হুকাবে এ সম্পর্কে বলেন, ‘বাজারের পুরো বিষয়টি আবহাওয়ার সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত। বর্তমানে এখানে সপ্তাহের শেষ দিকে এসে বৃষ্টিপাত বেড়েছে, যা আগামী সপ্তাহেও বজায় থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। বিন-জাতীয় উদ্ভিদের বেড়ে ওঠার জন্য এ আবহাওয়া পুরোপুরি উপযোগী।’ যুক্তরাষ্ট্র থেকে বর্তমানে গমের রফতানি চাহিদায় চাঙ্গাভাব দেখা দিয়েছে। ব্যবসায়ীদের ধারণা, গত সপ্তাহে স্পট মার্কেটে পণ্যটির দাম বুশেলপ্রতি ৪ ডলারের নিচে নেমে আসায় এর রফতানি চাহিদা বেড়েছে।