দুর্নীতিমুক্ত সমাজ গঠনে তরুণদের এগিয়ে আসার আহ্বান

প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০১৬, ০৮:০৮

অনলাইন ডেস্ক
ADVERTISEMENT

ট্র্যান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআইবি) দুর্নীতিমুক্ত সমাজ গঠনে তরুণ সমাজকে ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানিয়েছে। ‘দুর্জয় তারুণ্য—দুর্নীতির বিরুদ্ধে একসাথে’ এই প্রতিপাদ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) দুই দিনব্যাপী ‘টিআইবি-ডিইউডিএস জাতীয় স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতা ২০১৬’-এর অনুষ্ঠান থেকে এ আহ্বান জানানো হয়। ।

আগামী ১২ আগস্ট আন্তর্জাতিক যুব দিবস উপলক্ষে ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি ও টিআইবি যৌথভাবে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। দুর্নীতিবিরোধী এক মানববন্ধনের মধ্য দিয়ে বুধবার উদ্বোধনী দিনের কর্মসূচির সূচনা হয়। এদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি প্রাঙ্গণে এ মানববন্ধনে অংশ নিয়ে শিক্ষার্থী, টিআইবির অনুপ্রেরণায় গঠিত ইয়েস এনগেজমেন্ট অ্যান্ড সাপোর্ট (ইয়েস) গ্রুপের সদস্য, বিতার্কিক, টিআইবি কর্মী এবং সাধারণ শ্রেণী-পেশার মানুষেরা দুর্নীতি থেকে বিরত থাকার এবং সর্বগ্রাসী এই কালোশক্তিকে প্রতিহত করার অঙ্গীকার করেন।

মানববন্ধনে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘দুর্নীতির শাস্তি না হওয়ার ফলে অনেকে হতাশ হয়ে পড়ছে। এ অবস্থার উত্তরণে বিশেষ করে তরুণদের এগিয়ে আসতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, তরুণরা আজকের এ দুর্নীতিবিরোধী কার্যক্রমে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নিয়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে তাদের অবস্থান জানিয়ে দিয়েছে।

মানববন্ধনে আন্তর্জাতিক যুব দিবস উপলক্ষে টিআইবির পক্ষ থেকে তরুণদের জীবনাচরণ ও মতাদর্শে উদারতা, অসাম্প্রদায়িকতা, দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা জাগ্রত করতে সর্বাত্মক পদক্ষেপ গ্রহণসহ দারিদ্র ও ক্ষুধার বিরুদ্ধে কার্যকর পরিকল্পনা গ্রহণ, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি, নারী ও সংখ্যালঘু গোষ্ঠীর সমতা অর্জন, জলবায়ু পরিবর্তন ও দুর্যোগ মোকাবেলায় তরুণদের সক্ষমতা বৃদ্ধিসহ নয় দফা দাবি উপস্থাপিত হয়।

এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র মিলনায়তনে বিতর্ক প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হয়। স্বাগত বক্তব্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা ঘোষণা করেন টিআইবির পরিচালক ড. রিজওয়ান-উল-আলম। এরপর বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এবং ডিইউডিএসের মডারেটর ড. মাহবুবা নাসরীন। তিনি বলেন, ‘দুর্নীতিবিরোধী বাংলাদেশ আমাদের সবার অঙ্গীকার। সবাইকে নিয়েই এ অঙ্গীকার পূরণের পথে এগিয়ে যেতে হবে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টিআইবি’র ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য ও ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। তরুণরাই দুর্নীতি থেকে দেশের মানুষকে মুক্তি দিতে পারে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি দুর্নীতি প্রতিহত করতে সবার আগে নিজের বিবেক জাগ্রত করা, বই পড়া, অনুকরণীয় ব্যক্তিত্ব খুঁজে নেওয়া এবং সর্বোপরি দুর্নীতির বিরুদ্ধে আরো সক্রিয় হওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, ‘দুর্নীতিকে না বলার এখনই সময়। দুর্নীতি একটি দানবীয় বিষয়। মানবীয় গুণাবলী জাগ্রত করার মধ্য দিয়ে দুর্নীতির মোকাবেলা করতে হবে।’ এরপর বিতার্কিক ও উপস্থিত সবার দুর্নীতিবিরোধী শপথ পাঠের মাধ্যমে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে। এরপর ‘তথ্য আমার অধিকার...’ বিষয়ে প্রাণবন্ত বারোয়ারি বিতর্কের মাধ্যমে প্রতিযোগিতার প্রাথমিক পর্ব শুরু হয়।

বৃহস্পতিবার টিএসসি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে বিতর্ক প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় ও সমাপনী দিনের আয়োজন। বিকেল সোয়া ৪টায় অনুষ্ঠিতব্য বিতর্ক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ. আ. ম. স. আরেফিন সিদ্দিক এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন টিআইবি ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারপারসন অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল।